প্রথম বউকে সাথে নিয়ে দ্বিতীয় স্ত্রীকে হত্যা

প্রকাশিত: 4:53 PM, June 21, 2020

জাগ্রত বাংলাদেশ ডেস্ক: জয়পুরহাটের আক্কেলপুরে ২য় স্ত্রী রোজিনা আখতার হ’ত্যার দায় পুলিশের কাছে স্বীকার করেছেন ঘাতক স্বামী ও সতীন। হ’ত্যায় ব্যবহৃত রক্ত মাখা ছুরি ও মোবাইল ফোন বের করে দিয়েছেন পুলিশের হাতে। ময়না তদন্তের জন্য আজ রবিবার (২১ জুন) সকালে নিহতের মরদেহ মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত শুক্রবার গভীর রাতে ঘাতক স্বামী মেহেদী হাসান ও সতীন নূরজাহান আকতার ওরফে আঙ্গুর মিলে রোজিনা আখতারকে পূর্ব হিংসায় মুঠো ফোনে গুডুম্বা পিতার বাড়ি থেকে বের করে উপজেলার গোপীনাথপুর ইউপির হরিসাড়া গ্রামের নিজ বাড়িতে নিয়ে ছুরিকাঘাত করে হ’ত্যা করেন ২য় স্ত্রী রোজিনাকে। হ’ত্যার পর মরদেহ পুনরায় ফেলে রেখে আসেন রোজিনার পিতার বাড়ি পাশে।

গতকাল শনিবার (২০ জুন) সকালে উপজেলার রায়কালী ইউপির গুডুম্বা পূর্বপাড়া থেকে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যান ময়নাতদন্তের জন্য। শনিবার সকালেই আটক করেন ঘাতক স্বামী মেহেদী হাসানকে। পুলিশের কাছে মেহেদী হাসানের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে শনিবার বিকেলে পুলিশ নিহতের সতীন নুরজাহান আকতার ওরফে আঙ্গুর (২৯) কে ও আটক করে তাদের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী হ’ত্যায় ব্যবহৃত রক্ত মাখা ছুরি ও মোবাইল ফোন উদ্ধার করে পুলিশ।

আক্কেলপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ আবু ওবায়েদ বলেন, তারা রোজিনা হ’ত্যার দায় স্বীকার করেছে। এ ঘটনায় থানায় হ’ত্যা মামলা হয়েছে এবং রোববার সকালে নিহতের মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।