কালীগঞ্জে রেড জোনে আইন অমান্য, ১১ মামলায় ১২৪০০ টাকা আদায়

প্রকাশিত: 7:15 PM, June 14, 2020

জাগ্রত বাংলাদেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক, গাজীপুর : গাজীপুরের কালীগঞ্জেরেডজোনহিসেবেঘোষিতএলাকায় স্বাস্থ্যবিধিঅমান্যকরায়১ম দিন ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে ১১জনকে অর্থদন্ড করা হয়েছে। এতে১২হাজার৪শটাকাআদায় করেছে উপজেলা প্রশাসন।

শনিবার (১৩ জুন) সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত কালীগঞ্জ পৌরসভার রেড জোনের ৪, ৫ ও ৬ নং ওয়ার্ডে এ অর্থদন্ড করেন গাজীপুর জেলা প্রশাসনের সিনিয়র সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রাবেয়া পারভেজ এবং কালীগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শাহীনা আক্তার।

 কালীগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার রেড জোন এলাকা হিসেবে কালীগঞ্জ পৌরসভার ৪, ৫ ও ৬ নং ওয়ার্ডে ঘোষণা করা হয়। কিন্তু ওই এলাকার বিভিন্নস্থানে সরকারি নির্দেশনা  অমান্য করে মাস্ক না পরে বাড়ির বাহিরে অবস্থান করা, দোকান খোলা রেখে লোকসমাগম করা এবং বিনা কারণে বাড়ির বাহিরে ঘুরাফেরা করতে দেখা যায়। বিষয়টি স্থানীয় উপজেলা প্রশাসনের নজরে আসে। পরে  ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করার দায়ে ‘সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ, নির্মূল) আইন, ২০১৮’ অনূ্যায়ী ১১ জনকে ১১ টি মামলার মাধ্যমে ১২ হাজার ৪শ টাকা অর্থদন্ড করা হয়। এ ছাড়াও করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সকলকে ঘরে থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়।

গাজীপুর জেলা প্রশাসনের সিনিয়র সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রাবেয়া পারভেজ বলেন, রেড জোন হিসেবে ঘোষিত কালীগঞ্জ পৌরসভার ৪ ও ৫ নং ওয়ার্ডে অভিযান পরিচালনা করে স্বাস্থ্য বিধি অমান্য করার দায়ে ৬ জনকে ৭ হাজার ৮শ টাকা অর্থদন্ড করা হয়েছে। অন্যদিকে, কালীগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শাহীনা আক্তার বলেন, স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করার দায়ে কালীগঞ্জ পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ডে অভিযান পরিচালনা করে ৫ জনকে ৪ হাজার ৬শ টাকা অর্ধদন্ড করা হয়।

কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার শিবলী সাদিক বলেন, কালীগঞ্জ পৌরসভায় কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাওয়ায় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্ত মোতাবেক কালীগঞ্জ পৌরসভার ৪, ৫ ও ৬ নং ওয়ার্ডকে ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা হিসেবে রেড জোন ঘোষণা করা হয়েছে। যা গতকাল শুক্রবার (১২ জুন) রাত ১২ টা থেকে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। তবে রেড জোন ঘোষিত এলাকায় স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করার দায়ে শনিবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে ১১ জনকে ১২ হাজার ৪শ টাকা অর্থদন্ড দেওয়া হয়। আর এ কাজে সহযোগিতা করেছেন  ব্যাটেলিয়ন আনসার সদস্যরা।

ইউএনও আরো বলেন, রেড জোন ঘোষিত এলাকায় ওষুধের দোকান ব্যতিত সব ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এবং সকল প্রকার যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। অন্য এলাকার কোন লোক রেড জোন ঘোষিত এলাকায় প্রবেশ এবং রেড জোনে থাকা কাউকে বের হতে দেওয়া হচ্ছে না। যারা নির্দেশন অমান্য করবে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।