স্বপ্নের পদ্মা সেতু দৃশ্যমান হলো ৩ হাজার ৭৫০ মিটার পদ্মা সেতুর ২৫তম স্প্যান

প্রকাশিত: 7:14 PM, February 25, 2020

জাগ্রত বাংলাদেশ

গতকাল শুক্রবার (২১ শে ফেব্রুয়ারি) বসানো হয়েছে। বিকেল ৩টায় জাজিরা প্রান্তের ২৯ এবং ৩০ নম্বর খুঁটির ওপর বসানো হয়েছে এই স্প্যানটি। এই স্প্যানটি বসানোর মধ্য দিয়ে সেতুর ৩ হাজার ৭৫০ মিটার দৃশ্যমান হলো। পদ্মা সেতুর উপ-সহকারী প্রকৌশলী হুমায়ুন কবির গণমাধ্যমকে একথা জানিয়েছেন।
তিনি বলেন, শুক্রবার সকাল ১০টায় মাওয়ার কুমারভোগের কন্সট্রাকশন এরিয়া থেকে ভাসমান জাহাজ তিয়ান-ই ৫-ই নম্বর স্প্যানটি নিয়ে জাজিরার উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেয়। ঘন্টা দেড়েকের মধ্যে স্প্যানটি জাজিরা প্রান্তে খুঁটির কাছে পৌঁছে যায়। এর পর থেকে স্প্যানটি খুঁটির ওপর বসানোর শুরু হয়। পরে বিকাল ৩টায় স্প্যানটি খুঁটির ওপর বসানো হয়।

প্রকৌশলী হুমায়ুন কবির আরও বলেন, নদীর তলদেশের কাজের অগ্রগতি থাকায় দ্রুত এগিয়ে চলছে পদ্মা সেতুর স্প্যান বসানোসহ অন্যান্য কাজ। এর আগে গত ২৩ জানুয়ারি ২২তম স্প্যানটি বসানো হয়। এর ১১ দিনের মাথায় ২ ফেব্রুয়ারি বসে পদ্মা সেতুর ২৩তম স্প্যান। আর এর ৯ দিনের মাথায় ১১ ফেব্রুয়ারি বসানো হয়েছে ২৪তম স্প্যান। এবার ৯ দিন পর ২১ ফেব্রুয়ারি সর্বশেষ ২৫তম স্প্যান বসানো হলো। এখন থেকে প্রতি মাসে ৩টি করে স্প্যান বসানোর মধ্য দিয়ে সেতুর পুরো ৪১টি স্প্যান আগামী জুলাইয়ের মধ্যে বসানো সম্ভব হবে। ইতোমধ্যেই চলতি ফেব্রুয়ারি মাসে ৩টি স্প্যান বসানো হলো। এছাড়া ফেব্রুয়ারি মাসে আরও একটি স্প্যান বসানোর পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানান তিনি।

এদিকে, বাকি থাকা সেতুর চারটি পিয়ারের কাজের অগ্রগতি অনেকটা এগিয়েছে। সবশেষ ড্রাইভিং হওয়া ২৬ নম্বর পিয়ারের কাজ শেষ হবে এপ্রিলে। ৪২টি পিয়ারের মধ্যে বাকি রয়েছে ১০, ১১, ২৬, ২৭ নম্বর পিয়ার। চলতি মাসে ১০ এবং ১১ নম্বরের কাজও শেষ হবে। ৮ নম্বর খুঁটির কাজ শেষে এখন ক্যাপ ঢালাই চলছে। সিঙ্গেল ক্যাপ বসেছে এই ৮ নম্বরে। সেতুর ৭, ১৩, ১৯, ২৫, ৩১ ও ৩৭ নম্বর খুঁটি ছাড়া বাকি সবগুলোই সিঙ্গেল ক্যাপে। ১৩ নম্বর খুঁটি থেকে ১৯ নম্বর খুঁটিতে বসে গেছে ৬টি স্প্যান।
এদিকে জাজিরা প্রান্তে ৪২ নম্বর খুঁটি থেকে ৩৮ নম্বর খুঁটি পর্যন্ত রোড ওয়ে স্ল্যাব বসানো হয়েছে। এ প্রান্তে ৩০ থেকে ৪২ পর্যন্ত একাধারে ১২টি স্প্যান বসানোর পর ১৮০০ মিটার স্প্যান দৃশ্যমান হয়েছে। সব মিলিয়ে এখন পদ্মাসেতুর ২৪টি স্প্যানে ৩৬০০ মিটার দৃশ্যমান।