গাজীপুরে সতিনকে ডেকে এনে গলাটিপে হত্যা

প্রকাশিত: 10:31 PM, February 3, 2020

জাগ্রত বাংলাদেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক: গাজীপুরে মোবাইল ফোনে বাসায় ডেকে নিয়ে সতিনকে গলা টিপে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে এক নারীর বিরুদ্ধে। সোমবার দুপুরে গাজীপুর মহানগরীর সদর থানার পূর্ব চান্দনা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত রোজিনা বেগম (৩৫) শেরপুর সদর থানার দশানিবাজার এলাকার হাবিবুর রহমানের প্রথম স্ত্রী। এ ঘটনায় রিকশাচালক হাবিবুরের দ্বিতীয় স্ত্রী সাথী আক্তারকে আটক করেছে পুলিশ।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে গাজীপুর মেট্রোপলিটন সদর থানা পুলিশের এসআই ফিরোজ উদ্দিন বলেন, রিকশাচালক হাবিবুরের প্রথম স্ত্রী রোজিনা বেগম সন্তান নিয়ে শেরপুরের গ্রামের বাড়িতে থাকতেন। ছোট স্ত্রী সাথী আক্তারকে নিয়ে হাবিবুর মহানগরীর পূর্ব চান্দনা এলাকায় ভাড়া বাসায় থাকতেন। এখানে থেকে হাবিবুর এলাকায় রিকশা চালান। প্রথম স্ত্রী রোজিনা সন্তান নিয়ে শেরপুরের দশানিবাজারে থাকলেও বাবা-মা, ছোট ভাই ও স্বজনরা গাজীপুর মহানগরীর পূর্ব চান্দনা এলাকায় বসবাস করেন।

সম্প্রতি রোজিনা শেরপুরের গ্রামের বাড়ি থেকে গাজীপুরে পূর্ব চান্দনা এলাকায় বাবা-মায়ের কাছে বেড়াতে আসেন। খবর পেয়ে সাথী আক্তার মোবাইল ফোনে সতিন রোজিনাকে বাসায় ডেকে আনেন। সেখানে যাওয়ার পর রোজিনা এবং সাথীর মধ্যে দাম্পত্য বিষয় নিয়ে কথা কাটাকাটি এবং ধস্তাধস্তি শুরু হয়। একপর্যায়ে একে-অপরের গলা টিপে ধরলে রোজিনা অচেতন হয়ে পড়েন। এ সময় স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

গাজীপুর সদর থানা পুলিশের ওসি মো. আলমগীর ভূঁইয়া বলেন, দাম্পত্য কলহের জেরে এ ঘটনা ঘটেছে। হত্যাকারী সাথী আক্তারকে আটক করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় মামলা দায়ের প্রক্রিয়াধীন।