স্পর্শকাতর স্থানে হাত দিতেন গৃহশিক্ষক, কাঁদলেন অভিনেত্রী

প্রকাশিত: 2:32 PM, January 23, 2020

জাগ্রত বাংলাদেশ

বিনোদন ডেস্ক : সে এক ভয়াবহ ছোটবেলা। মেয়েটির বয়স তখন কতই বা! নয় বা দশ। নিজের বাড়িতেই মুখোমুখি হতে হয়েছিল এক ভয়ঙ্কর ঘটনার, যা ওই টুকু বয়সেই মানসিক ভাবে পুরোপুরি বিপর্যস্ত করে দিয়েছিল তাকে। সম্প্রতি এমনই এক ভয়াবহ স্মৃতির কথা শেয়ার করলেন অভিনেত্রী মধুরিমা তুলি।

ঠিক কী হয়েছিল মধুরিমার সঙ্গে? তাঁর কথায়, যে ব্যক্তি আমার শ্লীলতাহানি করতেন তিনি আমার গৃহশিক্ষক। তখন আমি খুবই ছোট।

কাঁদতে কাঁদতে মধুরিমা বলেন, আমি আর আমার ভাই একইসঙ্গে ওর কাছে পড়তাম। বহু বার সেই ব্যক্তি আমায় অশালীন ভাবে শরীরের র্স্পশকাতর জায়গায় হাত দেওয়ার চেষ্টা করতেন । ভাই থাকত বলে হয়ত নিজেকে কিছুটা গুটিয়ে রাখত। এ রকম বেশ কয়েক বার চলার পর আমি বাবা-মাকে গোটা ঘটনাটি জানাই।

সে সময় বাবা-মা’কে পাশে পেয়েছিলেন মধুরিমা। ওই ঘটনার আকস্মিকতায় এতটাই ভয় পেয়ে গিয়েছিলেন মধুরিমা যে পড়ায় মন বসাতে পারতেন না। স্কুলেও প্রভাব পড়েছিল। শিক্ষকেরা ভাবত ইচ্ছে করে পড়াশুনা করছেন না তিনি। দোষারোপ করত তাকে। ভিতরে শেষ হয়ে যাচ্ছিলেন ক্রমশই। সেই ঘটনার অভিঘাত থেকে নিজেকে মুক্ত করতেই ওড়িশা থেকে সপরিবারে দেহরাদূনে চলে যান মধুরিমা। নতুন করে জীবন শুরু করেন।

সম্প্রতি ‘ছপাক’-এর প্রচারের জন্য দীপিকা, বিক্রান্ত ছাড়াও যাকে কেন্দ্র করে ফিল্মের গল্প, সেই লক্ষ্মী আগরওয়াল এসেছিলেন বিগ বসের ঘরে। সেখানেই লক্ষ্মীর জীবনের নানা স্ট্রাগলের কথা শুনতে শুনতে নিজের জীবনের নানা অজানা তথ্য মেলে ধরেছিলেন প্রতিযোগীরা। অভিনেত্রী রেশমি দেশাইও জানিয়েছিলেন, এক বার বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করতে গিয়েছিলেন তিনি।