শীতলক্ষ্যা পরিদর্শন নদী পরিব্রাজক স্বেচ্ছাসেবক সংগঠন দল

প্রকাশিত: 1:35 PM, November 4, 2019

জাগ্রত বাংলাদেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক: দখল ও দূষণ দেখতে শীতলক্ষ্যা নদীর কালীগঞ্জ অংশে পরিদর্শন ও পর্যবেক্ষণ করেছে স্বেচ্ছাসেবক সংগঠন বাংলাদেশ নদী পরিব্রাজক দল।

সোমবার সকালে ধারাবাহিক এ কাজের অংশ হিসেবে দলটি শীতলক্ষ্যা নদীর কালীগঞ্জ অংশে দখল দূষণ দেখতে পরিদর্শন করে।

কালীগঞ্জ খেয়াঘাট থেকে ঘোড়াশাল শহীদ ময়েজউদ্দিন সেতু পর্যন্ত দলটি নদী পর্যবেক্ষণ করে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ নদী পরিব্রাজক দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ও বিশিষ্ট নদী গবেষক মো. মনির হোসেন।

মনির হোসেন বলেন, শীতলক্ষ্যা নদীর কালীগঞ্জ খেয়াঘাট থেকে ঘোড়াশাল ব্রিজ পর্যন্ত অংশটি দখল ও দূষণে বিপন্নপ্রায়। ব্যক্তি উদ্যোগের পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের প্রতিষ্ঠানও নিয়মিত নদী দখল ও দূষণ করছে। কাজেই এ নদীটি দখল ও দূষণ থেকে বাঁচাতে হলে আমাদের বেশকিছু উদ্যোগ নিতে হবে।

এর মধ্যে প্রথমেই অবৈধ দখল উচ্ছেদ করে নদীর পাড়ঘেঁষে একটি ওয়াকওয়ে নির্মাণ করতে হবে, যাতে পুনরায় প্রতিষ্ঠানগুলো নদীর জমি দখলে না নিতে পারে। পাশাপাশি নদীর অববাহিকায় যেসব পানি কারখানাগুলো নিজেদের প্রয়োজনে ব্যবহারের পর পরিশোধন ছাড়াই আবার নদীতে ছেড়ে দিচ্ছে, তা বন্ধ করতে হবে। এছাড়া নদীর পাড়ে গড়ে ওঠা প্রতিষ্ঠানগুলো থেকে নদী রক্ষার জন্য নিয়মিত অর্থ আদায়ের ব্যবস্থা করতে হবে।

পরিদর্শন ও পর্যবেক্ষণ শেষে কালীগঞ্জ খেয়াঘাট এলাকায় সংগঠনটির কালীগঞ্জ উপজেলা শাখার সভাপতি আব্দুর রহমান আরমানের সভাপতিত্বে এক পথসভা অনুষ্ঠিত হয়। সাধারণ সম্পাদক রফিক সরকারের সঞ্চালনায় এতে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন নদী বন্ধু ড. মো. সিদ্দিকুর রহমান, ড. ইসমাইল হোসেন, ফরিদ উদ্দিন সোহেল, ইঞ্জিনিয়ার হাবিবুর রহমান, সখিনা জাহান বর্ণা, আসফিয়াক খালিদ, আশরাফুল আলম আইয়ুব, বিল্লাল হোসেন, মাফুজা আফরিন মনি প্রমুখ। এ সময় বাংলাদেশ নদী পরিব্রাজক দল কেন্দ্রীয়, গাজীপুর জেলা ও কালীগঞ্জ উপজেলা শাখার অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।